মেনু নির্বাচন করুন

জমিদার বাড়ী এবং বেরুয়ান জামে মসজিদ

ব্যানারে উপস্থাপতি জমিদার বাড়ী  এবং বেরুয়ান জামে মসজিদের আংশিক কিছু তথ্য তুলে ধরা হলো।

 

চন্দ্রনাথ সেনের জমিদার বাড়ী 

চাঁদভা ইউনিয়নে দর্শনীয় স্থানের মধ্যে জমিদার চন্দ্রনাথ সেনের আমলেপ্রতিষ্টিত নাম করা জমিদার বাড়ীটি বিশেষ ভাবে উল্লেখ যোগ্য। প্রায় ২০০ বছরআগে জমিদার চন্দ্রনাথ সেন এই বাড়ীটি তৈরী করেন। যা আজ পর্যন্তও এলাকার নিকট একটি ঐতিহ্যবাহী বাড়ী হিসেবে পরিচিত লাভ করে আছে। 

যোগাযোগ ব্যবস্থা :-

উক্ত বাড়ীটিতে আসার রাস্তা হল পাবনা সদর থানা থেকে প্রথমে সি,এন,জি অথবা বাসে চড়ে কিংবা টেম্পু যোগে আসা যায়। পাবনা শহর থেকে প্রথমে আটঘরিয়ার উদ্দেশ্যে সি,এন,জি অথবা বাসে চড়ে কিংবা টেম্পুতে উঠে আটঘরিয়ায় আসেত হবে। তারপর আটঘরিয়া বাজার থেকে সোজা চাঁদভা বাজারে নামতে হবে। চাঁদভা বাজারের একদম সাথে চন্দ্রনাথ সেনের জমিদার বাড়ীটি অবস্থীত।

 

বেরুয়ান জামে মসজিদ

 

 

বেরুয়ান জামে মসজিদটি প্রায় শত শত বছর আগের একটি ঐতিহ্যবাহী জামে মসজিদ। উক্ত মসজিদটি চাঁদভা ইউনিয়নের মধ্যে সবচেয়ে পুরাতন একটি মসজিদ।

 

এই মসজিদটি এলাকাবাসীর কাছে খুব প্রাচীন মসজিদ হিসাবে পরিচিত। পাবনা সদর উপজেলা থেকে মসজিদটির দুরত্ব প্রায় ১২ কিলোমিটার। ১৮০০ সালের দিকে মসজিদটি নির্মাণ করেন বেরুয়ান গ্রাম বাসি।

এরপর ধীরে ধীরে  মসজিদটি সংস্কার করা শুরু হয়। চুন, শুরকি নির্মিত মসজিদটি পুর্ব-উত্তর পাশে রয়েছে সুনিপুন দূর্লভ কারকার্য। মসজিদটির দৈর্ঘ্য ১৩.৩০ মিটার প্রস্থ ৪.০০ মিটার এবং উচ্চতা ১৫ ফুট। উক্ত মসজিদে তিনটি বড় আকৃতির গম্বুজ রয়েছে। মসজিদের দেয়াল ২  ফুট প্রশস্ত। মসজিদটি দেখাশোনা করার জন্য একজন কেয়ারটেকার নিয়োগ করা হয়েছে।

 

মসজিদের বর্তমান ইমাম জানান, বর্তমানে মসজিদটিতে অনেক ধরনের কাজ করে সুন্দর করা হয়েছে। মসজিদটি দেখার জন্য এখনও অনেক দর্শনার্থী আসে। এলাকাবাসী ও দর্শনার্থীরা মসজিদটির সংস্কারের জন্য আরও চেষ্টা করছে।


Share with :

Facebook Twitter